নবম-দশম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান ৩য় অধ্যায়ের বহুনির্বাচনি ও জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর

0
46

নবম-দশম শ্রেণির পদার্থ বিজ্ঞান ৩য় অধ্যায়ের বহুনির্বাচনি

ও জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর

এস.এস.সি পদার্থ বিজ্ঞান ৩য় অধ্যায় বল

০১। বস্তু গতিশীল হয় কীসের কারণে?

(ক) বেগ

(খ) বল✔

(গ) দ্রুতি

(ঘ) ওজন

০২। বল প্রয়োগ না করলে সমবেগে চলতে থাকা বস্তু-

(ক) একসময় থেমে যাবে

(খ) বেগ ধীরে ধীরে বেড়ে যাবে

(গ) সমদ্রুতিতে সরলরেখায় চলতে থাকবে✔

(ঘ) ত্বরণ কমে যাবে

০৩। সমতল মেঝেতে একটি মারবেল গড়িয়ে দেওয়ার পর কিছুদূর গিয়ে সেটা থেমে গেল, এর কারণ কী?

(ক) ঘর্ষণ বল

(খ) বাতাসের বাঁধা

(গ) ক ও খ✔

(ঘ) কোনটিই নয়

০৪। ঘর্ষণ বল-

(ক) বস্তুতে প্রয়োগ করা বলের দিকে কাজ করে

(খ) বস্তুতে প্রয়োগ করা বলের বিপরীতে কাজ করে✔

(গ) বস্তুর তলদেশে কাজ করে

(ঘ) কোন কাজ করে না

০৫। জড়তা কী?

(ক) জড় বস্তুর অবস্থা

(খ) জড় বস্তুর গতিশীল অবস্থা

(গ) জড় বস্তুর স্থির অবস্থা

(ঘ) বস্তু যে অবস্থায় আছে সেই অবস্থাতেই থাকতে চাওয়ার প্রবণতা✔

০৬। জড়তার সাথে বস্তুর ভরের সম্পর্ক কী?

  1. জড়তার পরিমাপই হচ্ছে ভর
  2. ভর বেশি হলে জড়তা বেশি হয়

iii. ভর কম হলে জড়তা বেশি হয়

নিচের কোনটি সঠিক?

(ক) i

(খ) ii

(গ) i ও ii✔

(ঘ) i ও iii

০৭। বস্তুর জড়তা বেশি হলে তার ভরবেগ-

(ক) কম হয়

(খ) বেশি হয়✔

(গ) জড়তা ভরবেগের উপর কোন প্রভাব ফেলে না

(ঘ) ভরবেগ একই থাকে

০৮। বল-

  1. বস্তুর গতিকে প্রভাবিত করে
  2. বস্তুর ভরবেগের পরিবর্তন ঘটায়

iii. বস্তুর ভরের পরিবর্তন ঘটায়

নিচের কোনটি সঠিক?

(ক) i

(খ) i ও ii✔

(গ) i ও iii

(ঘ) i, ii ও iii

০৯। বলের সংজ্ঞা পাওয়া যায় কোন সূত্র থেকে?

(ক) নিউটনের প্রথম সূত্র থেকে✔

(খ) নিউটনের দ্বিতীয় সূত্র থেকে

(গ) নিউটনের তৃতীয় সূত্র থেকে

(ঘ) গ্যালিলিও গতির সূত্র থেকে

১০। পারমাণবিক পর্যায় বিবেচনা করলে সব বলই-

(ক) স্পর্শক বল

(খ) অস্পর্শক বল✔

(গ) স্পর্শক এবং অস্পর্শক বল

(ঘ) কোনটিই নয়

১১। মৌলিক বল কয়টি?

(ক) ২টি

(খ) ৩টি

(গ) ৪টি✔

(ঘ) ৫টি

১২। নিচের কোনটি মৌলিক বল নয়?

(ক) তড়িৎচৌম্বক বল

(খ) আণবিক বল✔

(গ) সবল নিউক্লিয় বল

(ঘ) মহাকর্ষ বল

১৩। পৃথিবী সূর্যের চারপাশে ঘোরে কোন বলের প্রভাবে?

(ক) অভিকর্ষ বল

(খ) মহাকর্ষ বল✔

(গ) কেন্দ্রমুখী বল

(ঘ) তড়িৎচৌম্বক বল

১৪। তড়িৎচৌম্বক বলের বিশেষত্ব কোনটি?

  1. এই বল আকর্ষণ এবং বিকর্ষণ দুটোই করতে পারে।
  2. মৌলিক বলগুলোর মধ্য এটা সবচেয়ে শক্তিশালী বল।

iii. মৌলিক বলগুলোর মধ্য এটা সবচেয়ে দুর্বল বল।

নিচের কোনটি সঠিক?

(ক) i✔

(খ) ii                            (গ) i ও ii

(ঘ) i ও iii

১৫। তড়িৎচৌম্বক মহাকর্ষ বলের অপেক্ষা কতোগুণ শক্তিশালী?

(ক) 1034 গুণ

(খ) 1036 গুণ✔

(গ) 1038 গুণ

(ঘ) 1040 গুণ

১৬। যে কোন দুরত্বে কাজ করতে পারে-

  1. মহাকর্ষ বল
  2. সবল নিউক্লিয় বল

iii. তড়িৎচৌম্বকীয় বল

নিচের কোনটি সঠিক?

(ক) i

(খ) ii

(গ) i ও ii

(ঘ) i ও iii✔

১৭। দূর্বল নিউক্লিয় বল কতো দূরত্বের মাঝে কাজ করতে পারে?

(ক) 10-18 m✔

(খ) 10-16 m

(গ) 10-14 m

(ঘ) 10-12 m

১৮। সবচেয়ে শক্তিশালী মৌলিক বল কোনটি?

(ক) তড়িৎচৌম্বক বল

(খ) মহাকর্ষ বল

(গ) আণবিক বল

(ঘ) সবল নিউক্লিয় বল✔

১৯। তেজস্ক্রিয় নিউক্লিয়াস থেকে বিটা (𝛃) রশ্মি বের হওয়ার পিছনে দায়ী কোন বল?

(ক) সবল নিউক্লিয় বল✔

(খ) দুর্বল নিউক্লিউ বল

(গ) মহাকর্ষ বল

(ঘ) তড়িৎচৌম্বক বল

২০। সবল নিউক্লিয় বল কোথায় কাজ করে?

(ক) প্রোটন ও নিউট্রনের মাঝে✔

(খ) নিউট্রন ও ইলেক্ট্রনের মাঝে

(গ) নিউক্লিয়াস ও ইলেক্ট্রনের মাঝে

(ঘ) প্রোটন ও ইলেক্ট্রনের মাঝে

২১। সবল নিউক্লিয় বলের উদাহরণ-

  1. নিউক্লিয়ার বিস্ফোরণ
  2. পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র

Iii. সূর্য

নিচের কোনটি সঠিক?

(ক) i

(খ) i ও ii

(গ) i ও iii

(ঘ) i, ii ও iii✔

২২। একটি বস্তু সুতার সাহায্যে ভূপৃষ্ঠ থেকে কিছুটা উঁচুতে স্থির ভাবে ঝোলানো আছে। এক্ষেত্রে বস্তুরটির উপরে কয়টি বল কাজ করছে?

(ক) একটি

(খ) দুইটি✔

(গ) তিনটি

(ঘ) চারটি

২৩। লব্ধি বল কী?

(ক) কোন বস্তুর উপর প্রয়োগকৃত বিভিন্ন দিকের বলের মধ্যকার ভেক্টর যোগফল✔

(খ) কোন বস্তুর উপর প্রয়োগকৃত বিভিন্ন দিকের বলের মধ্যকার স্কেলার যোগফল

(গ) কোন বস্তুর উপর প্রয়োগকৃত বিভিন্ন দিকের বলের মধ্যকার গুনফল

(ঘ) কোন বস্তুর উপর প্রয়োগকৃত বিভিন্ন দিকের বলের মধ্যকার বিয়োগফল

২৪। ভরবেগ এর ক্ষেত্রে কোনটি সঠিক নয়?

(ক) ভরবেগ হচ্ছে বস্তুর ভর ও বেগের গুনফল

(খ) ভরবেগ স্কেলার রাশি✔

(গ) ভরবেগ ভেক্টর রাশি

(ঘ) বাইরে থেকে বল প্রয়োগ না করলে সংঘর্ষের পর মোট ভরবেগের কোন পরিবর্তন হয় না

২৫। ভরবেগের মাত্রা কোনটি?

(ক) MLT

(খ) MLT-1✔

(গ) MLT2

(ঘ) MLT-2

২৬। কোন বস্তুর ভর m এবং আদিবেগ u হলে ঐ বস্তুর গতিশক্তি-

(ক) 1/2mu

(খ) 1/2m2u

(গ) 1/mu2✔

(ঘ) 1/2m2u2

২৭। বেগ দ্বিগুণ হলে শক্তি কতোগুন বেড়ে যায়?

(ক) দ্বিগুণ

(খ) চারগুণ✔

(গ) আটগুণ

(ঘ) ষোলগুণ

২৮। নিউটনের সূত্রানুযায়ী, বস্তুর ভরবেগের পরিবর্তনের হার-

(ক) বস্তুর উপর প্রযুক্ত বলের সমান

(খ) বস্তুর উপর প্রযুক্ত বলের সমানুপাতিক✔

(গ) বস্তুর উপর প্রযুক্ত বলের অর্ধেক

(ঘ) বস্তুর উপর প্রযুক্ত বলের ব্যস্তানুপাতিক

২৯। ভরবেগের পরিবর্তন কোনদিকে ঘটে?

(ক) বল প্রয়োগের দিকে✔

(খ) বল প্রয়োগের বিপরীত দিকে

(গ) ভরবেগের কোন পরিবর্তন ঘটে না

(ঘ) কোনটিই নয়

৩০। নিউটনের দ্বিতীয় সূত্রের মাঝে কোন রাশিটি অনুপস্থিত?

(ক) বল

(খ) ত্বরণ

(গ) তাপমাত্রা✔

(ঘ) সময়

পদার্থ বিজ্ঞান – ৩য় অধ্যায়  বল – জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর

১. নিউটনের গতির প্রথম সূত্রটি লিখ। / নিউটনের গতির ১ম সূত্রটি লিখ কী?

উত্তরঃ- বাহ্যিক কোনো বল প্রয়োগ করা না হলে স্থির বস্তু চিরকাল স্থির থাকবে এবং গতিশীল বস্তু চিরকাল সুষম দ্রুতিতে সরল পথে চলতে থাকবে।

২. নিউটনের গতির দ্বিতীয় সূত্রটি লিখ। / নিউটনের গতির দ্বিতীয় সূত্রটি লিখ কী? / নিউটনের গতির ২য় সূত্রটি লিখ কী?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর ভর বেগের পরিবর্তনের হার বস্তুর উপর প্রযুক্ত বলের সমানুপাতিক এবং বল যেদিকে ক্রিয়া করে ভর বেগের পরিবর্তনও সেদিকে ঘটে।

৩. নিউটনের গতির তৃতীয় সূত্রটি লিখ। / নিউটনের গতির তৃতীয় সূত্রটি লিখ কী? / নিউটনের গতির ৩য় সূত্রটি লিখ কী?

উত্তরঃ- প্রত্যেকটি ক্রিয়ার একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া থাকে।

৪. জড়তা কাকে বলে ?

উত্তরঃ- বল প্রয়োগ না করা পর্যন্ত স্থির বস্তুর চিরকাল স্থির অবস্থায় এবং গতিশীল বস্তুর চিরকাল গতিশীল অবস্থায় থাকতে চাওয়ার প্রবণতা বা ধর্মকে জড়তা বলে।

৫. ভর কী ?

উত্তরঃ- ভর হলো জড়তার পরিমাপ।

৬. বল কী ?

উত্তরঃ- যা স্থির বস্তুর উপর ক্রিয়া করে তাকে গতিশীল করে বা করতে চায় অথবা যা গতিশীল বস্তুর উপর ক্রিয়া করে তার গতির পরিবর্তন করে বা করতে চায় তাকে বল বলে।

৭. স্পর্শ বল কাকে বলে ?

উত্তরঃ- যে বল সৃষ্টির জন্য দুটি বস্তুর প্রত্যক্ষ সংস্পর্শের প্রয়োজন হয় তাকে স্পর্শ বল বলে।

৮. অস্পর্শ বল কাকে বলে ?

উত্তরঃ- দুটি বস্তুর প্রত্যক্ষ সংস্পর্শ ছাড়াই যে বল ক্রিয়া করে তাকে অস্পর্শ বল বলে।

৯. সাম্য বল বলতে কী বোঝায় ?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর উপর একাধিক বল ক্রিয়া করলে যদি বলের লব্ধি শূণ্য হয় তবে তাকে সাম্য বল বলে।

১০. অসাম্য বল কাকে বলে ?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর উপর একাধিক বল প্রয়োগ করা হলে যদি বলের লব্ধি শূন্য না হয় বরং লব্ধির মান ও দিক থাকে তখন এই ধরনের বলকে অসাম্য বল বলা হয়।

১১. মৌলিক বল কী?

উত্তরঃ- যেসকল বল অন্য কোনো বল থেকে উৎপন্ন হয় না বা অন্য কোনো বলের রূপ নয় বরং অন্যান্য বল এসকল বলের কোনো না কোনো রূপের প্রকাশ তাদেরকে মৌলিক বল বলে। (মহাকর্ষ বল, তড়িৎ চৌম্বকীয় বল, দুর্বল নিউক্লিয় বল এবং সবল নিউক্লিয় বল)

১২. সবল নিউক্লিয় বল কাকে বলে?

উত্তরঃ- পরমাণুর নিউক্লিয়াসের ভেতরে প্রোটন ও নিউট্রনের মাঝে যে শক্তিশালী বল কাজ করে তাকে সবল নিউক্লিয় বল বলে।

১৩. মহাকর্ষ বল কী?

উত্তরঃ- মহাবিশ্বের যেকোনো দুটি বস্তুর মাঝে যে বল কাজ করে তাকে মহাকর্ষ বল বলে।

১৪. তড়িৎ চৌম্বক বল কাকে বলে?

উত্তরঃ- দুটি আহিত কণা বা বস্তু তাদের আধানের কারণে একে অপরের উপর যে বল প্রয়োগ করে তাকে তড়িৎ চৌম্বক বল বলে।

১৫.কোন বলটি আকর্ষণ এবং বিকর্ষণ দুটোই করতে পারে?

উত্তরঃ- কেবল মাত্র তড়িৎ চৌম্বক বল আকর্ষণ এবং বিকর্ষণ দুটোই করতে পারে, অন্যগুলো শুধু আকর্ষণ করতে পারে কিন্তু বিকর্ষণ করতে পারে না।

১৬. কোন দুটি বলের পাল্লা অসীম?

উত্তরঃ- মহাকর্ষ বল এবং তড়িৎ চৌম্বক বলের পাল্লা অসীম, এরা যেকোনো দূরত্বে কাজ করতে পারে।

১৭.দুর্বল নিউক্লিয় বল কাকে বলে?

উত্তরঃ- যে স্বল্প পাল্লার এবং স্বল্প মানের বল নিউক্লিয়াসের অভ্যন্তরস্থ মৌলিক কণাগুলোর মধ্যে ক্রিয়া করে তাকে দুর্বল নিউক্লিয় বল বলে।

১৮. বিটাক্ষয় কেন হয়?

উত্তরঃ- দুর্বল নিউক্লিয় বলের কারণে নিউক্লিয়াস হতে বিটাক্ষয় হয়।

১৯. লব্ধি কী?

উত্তরঃ- দুই বা ততোধিক ভেক্টরের যোগফলকে লব্ধি বলে।

২০. ভরবেগ কাকে বলে?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর ভর এবং বেগের গুণফলকে ভরবেগ বলে।

২১. ভরবেগের সংরক্ষণশীলতা / নিত্যতার নীতি কী?

উত্তরঃ- দুটি বস্তুর মাঝে ক্রিয়া ও প্রতিক্রিয়া বল ছাড়া অন্য কোন বল কাজ না করলে কোন নির্দিষ্ট দিকে তাদের মোট ভরবেগের পরিবর্তন হয় না অর্থাৎ আদি ভরবেগের সমষ্টি শেষ ভরবেগের সমান থাকে।

২২. ওজন কী?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর ওজন হলো বস্তুর উপর ক্রিয়ারত পৃথিবীর আকর্ষণ বল।

২৩. বলের ঘাত কী?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর বল অল্প সময় ক্রিয়া করলে ঐ বলের মান এবং সময়ের গুণফলকে বলের ঘাত বলে।

২৪. ঘাত বল কী?

উত্তরঃ- অতি অল্প সময় ধরে প্রচন্ড মানের কোনো বল বস্তুর উপর ক্রিয়াশীল থাকলে,  উক্ত বলকে ঘাত বল বলে।

২৫. মাধ্যাকর্ষণ বল/অভিকর্ষ বল কী?

উত্তরঃ- কোনো বস্তুর উপর পৃথিবীর আকর্ষণ বলই হলো মাধ্যাকর্ষণ বল।

২৬. লুবিক্রেন্ট কী?

উত্তরঃ- তেল মবিল এবং গ্রীজ জাতীয় পদার্থকে সংক্ষেপে লুবিক্রেন্ট বলে।

২৮.ঘর্ষণ বল কী?

উত্তরঃ- একটি বস্তু যখন অন্য একটি বস্তুর সংস্পর্শে থেকে একটির উপর দিয়ে অপরটি চলতে থাকে তখন বস্তুদ্বয়ের স্পর্শতলে গতির বিরুদ্ধে একটি বাধার উৎপত্তি হয় যাকে ঘর্ষণ বলে এবং এই বাধা সৃষ্টিকারী বলকেই ঘর্ষণ বল বলা হয়।

২৯. প্রবাহী ঘর্ষণ কাকে বলে?

উত্তরঃ- কোনো বস্তু প্রবাহী পদার্থের (তরল বা বায়বীয়) মধ্য দিয়ে  যাওয়ার সময় এর গতির বিপরীতে যে ঘর্ষণ অনুভব করে তাকে প্রবাহী ঘর্ষণ বলে।

৩০. স্থিতি ঘর্ষণ কাকে বলে?

উত্তরঃ- দুটি বস্তু একে অন্যের সাপেক্ষে স্থির থাকা অবস্থায় যে ঘর্ষণ বল কাজ করে তাকে স্থিতি ঘর্ষণ বলে।

৩১. গতি ঘর্ষণ কাকে বলে?

উত্তরঃ- একটি বস্তুর সাপেক্ষে যখন অন্য বস্তু চলমান হয় তখন যে ঘর্ষণ বল তৈরি হয় সেটি হচ্ছে গতি ঘর্ষণ।

৩২. আবর্ত ঘর্ষণ কাকে বলে?

উত্তরঃ- যখন একটি বস্তু অন্য একটি বস্তু বা তলের উপর দিয়ে গড়িয়ে চলে তখন তার গতির বিরুদ্ধে যে ঘর্ষণ বল ক্রিয়া করে তাকে আাবর্ত ঘর্ষণ বল বলে।

৩৩. বিসর্প ঘর্ষণ কাকে বলে?

উত্তরঃ- একটি বস্তু অন্য একটি বস্তু বা তলের উপর দিয়ে পিছলিয়ে বা ঘষে চলার সময় সৃষ্ট ঘর্ষণকে বিসর্প ঘর্ষণ বলে।

Download From Google Drive

Download

আরো পড়ুনঃ-

Download From Yandex

Download