নবম-দশম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অধ্যায়-ষষ্ঠ বহুনির্বাচনি ও জ্ঞান মূলক প্রশ্ন উত্তর

0
95

নবম-দশম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অধ্যায়-ষষ্ঠ

বহুনির্বাচনি ও জ্ঞান মূলক প্রশ্ন উত্তর

অধ্যায় – ৬: বাংলাদেশের নদ-নদী ও প্রাকৃতিক সম্পদ

১.মেঘনার উপনদী কোনটি?

ক) বুড়িগঙ্গা

খ) করতোয়া

গ) আত্রাই

ঘ) গোমতী

সঠিক উত্তর: (ঘ)

২.তিস্তা নদীর উৎপত্তি কোথায়?

ক) সিলেটে লুসাই পাহাড়ে

খ) সিলেটের জয়ন্তিয়া সরোবরে

গ) পার্বত্য চট্টগ্রামে

ঘ) সিকিমের পার্বত্য অঞ্চলে

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩.কোন সংস্থা যাত্রীবাহী জলযানের ব্যবস্থা করে থাকে?

ক) আই ডব্লিউ টি এ

খ) বি আই ডব্লিউ টি এ

গ) বি আর টি সি

ঘ) বি আর টি এ

সঠিক উত্তর: (ক)

৪.কর্ণফুলী নদীর দৈর্ঘ্য কত কিলোমিটার?

ক) ২৮০

খ) ৩২০

গ) ৩৪০

ঘ) ৩৯০

সঠিক উত্তর: (খ)

৫.পদ্মার উপনদী কোনটি?

ক) কুমার

খ) ভৈরব

গ) মহানন্দা

ঘ) মধুমতী

সঠিক উত্তর: (গ)

৬.বাংলাদেশের প্রথম জলবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রটি কোথায় অবস্থিত?

ক) বাকলিয়া

খ) কাপ্তাই

গ) তালিমাবাদ

ঘ) মহেশখালী

সঠিক উত্তর: (খ)

৭.তিস্তা নদীর গতিপথ পরিবর্তনের কারণ কী?

ক) ১৯৯৮ সালের প্রবল বন্যা

খ) ১৯৮৮ সালের প্রবল বন্যা

গ) ১৯৮৭ সালের প্রবল বন্যা

ঘ) ১৮৯৭ সালের ভূমিকম্প

সঠিক উত্তর: (গ)

৮.কোন নদীটির দুইটি নাম?

ক) মেঘনা

খ) কর্ণফুলী

গ) মাতামুহুরী

ঘ) পদ্মা

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৯.বাংলাদেশে ‘অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ’ গঠন করা হয় কত সালে?

ক) ১৯৬০

খ) ১৯৫৮

গ) ১৯৭২

ঘ) ১৯৭৩

সঠিক উত্তর: (খ)

১০.কুশিয়ারা ও সুরমা নদী আজমিরিগঞ্জের কাছে কী নামে অগ্রসর হয়েছে?

ক) মেঘনা

খ) যমুনা

গ) কালনী

ঘ) আড়িয়াল খাঁ

সঠিক উত্তর: (গ)

১১.কোন শহরটি শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে অবস্থিত?

ক) ঢাকা

খ) সিলেট

গ) গাজীপুর

ঘ) নারায়ণগঞ্জ

সঠিক উত্তর: (ঘ)

১২.বাংলাদেশের সকল নদ-নদীর গন্তব্য কোথায়?

ক) কৃষ্ণ সাগরে

খ) আরব সাগরে

গ) বঙ্গোপসাগরে

ঘ) ভারত মহাসাগরে

সঠিক উত্তর: (গ)

১৩.নদী প্রবাহ হারালে ক্ষতিগ্রস্ত হবে –

  1. মানুষ
  2. পশুপাখি

iii. গাছ-তরুলতা

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

১৪.কোন মহাদেশের দেশগুলো সহজে প্রচুর সৌরশক্তি পেয়ে থাকে?

ক) ইউরোপ

খ) আমেরিকা

গ) এশিয়া

ঘ) আফ্রিকা

সঠিক উত্তর: (গ)

১৫.কোনটি পৃথিবীর সবচাইতে ঘনবসতিপূর্ণ দেশ?

ক) বাংলাদেশ

খ) ভারত

গ) চীন

ঘ) মিয়ানমার

সঠিক উত্তর: (ক)

১৬.উদ্ভিদের বৈশিষ্ট্য অনুসারে বনাঞ্চলকে কতটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে?

ক) ২

খ) ৩

গ) ৪

ঘ) ৫

সঠিক উত্তর: (খ)

১৭.গজারি বৃক্ষের বৈশিষ্ট্য হলো –

  1. ঋতুভেদে সকল পাতা ঝরে পড়ে
  2. এর পাতাগুলো চিরসবুজ থাকে

iii. এটি লবণাক্ত মাটিতে জন্মায়

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i

খ) ii

গ) i ও iii

ঘ) ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

১৮.তুলা, চা, ডাল, মরিচের উৎপাদন বেশ ভালো হয় –

  1. ভারতে
  2. বাংলাদেশে

iii. মিয়ানমারে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (গ)

১৯.বাংলাদেশে নদীপথের বাণিজ্যকে কত সালে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়া হয়?

ক) ১৯৬৫

খ) ১৯৭০

গ) ১৯৭২

ঘ) ১৯৭৬

সঠিক উত্তর: (গ)

২০.কোনটির কারণে আমাদের দেশের মৎস্য সম্পদ নষ্ট হতে বাধ্য?

ক) ভূতাত্ত্বিক অবস্থার

খ) জলবায়ুগত অবস্থার

গ) বৃষ্টি শূন্যতার

ঘ) নদীর নাব্যতার

সঠিক উত্তর: (গ)

২১.কর্ণফুলীর প্রধান উপনদী হচ্ছে –

  1. কাসালাং
  2. হালদা

iii. পশুর

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

২২.বাংলাদেশের বেশিরভাগ নদীর উৎস কোন দেশ?

ক) মায়ানমার

খ) নেপাল

গ) ভারত

ঘ) ভুটান

সঠিক উত্তর: (গ)

২৩.বাংলাদেশের অর্থনীতিতে নদ-নদীর প্রভাব অপরিসীম হওয়ার কারণ –

  1. নদী পরিবহন ও যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম
  2. সেচে, শিল্পে, বিদ্যুৎ উৎপাদনে পানির প্রয়োজন হয়

iii. কৃষি, শিল্প ও ব্যবসা নদীর ওপর নির্ভারশীল

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

২৪.মাতামুহুরী নদীর উৎপত্তি স্থল কোথায়?

ক) সাইভার পর্বত

খ) লুসাই পাহাড়

গ) মানস সরোবর

ঘ) গঙ্গোত্রী হিমবাহ

সঠিক উত্তর: (ক)

২৫.তিস্তা নদী বাংলাদেশের কোন অঞ্চল দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?

ক) পঞ্চগড়

খ) ডিমলা

গ) কুমিল্লা

ঘ) বড়লেখা

সঠিক উত্তর: (খ)

২৬.কখন ব্রহ্মপুত্রের প্রধান ধারাটি ময়মনসিংহের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হতো?

ক) ১৯৮৭ সালের আগে

খ) ১৭৮৭ সালের আগে

গ) ১৮১৭ সালের আগে

ঘ) ১৮৮৭ সালের আগে

সঠিক উত্তর: (খ)

২৭.বাংলাদেশের নদ-নদীর সংখ্যা কতটি?

ক) ৭৩০টি

খ) ৬৫০টি

গ) ৭০০টি

ঘ) ৮০০টি

সঠিক উত্তর: (গ)

২৮.ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণের ফলে বাংলাদেশের কোন অঞ্চল ভয়াবহ সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে?

ক) উত্তর-পূর্বাঞ্চল

খ) উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল

গ) উত্তর-দক্ষিণাঞ্চল

ঘ) দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল

সঠিক উত্তর: (খ)

২৯.কখন মানুষ নদীতীরবর্তী সমতল ভূমিতে বসবাস শুরু করে?

ক) প্রাচীনযুগে

খ) মধ্যযুগে

গ) প্রস্তুর যুগে

ঘ) ব্রোঞ্জযুগে

সঠিক উত্তর: (ক)

৩০.পদ্মা নদীর জন্মস্থান কোথায়?

ক) তিব্বতের মানস সরোবরে

খ) সিলেটের লুসাই পাহাড়ে

গ) মধ্য হিমালয়ের গঙ্গোত্রী হিমবাহে

ঘ) আসামে

সঠিক উত্তর: (গ)

৩১.কুশিয়ারা কোথায় কালনীর সাথে মিলিত হয়েছে?

ক) চাঁদপুরে

খ) দৌলতদিয়ায়

গ) সুনামগঞ্জে

ঘ) আজমিরিগঞ্জের কাছে

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩২.বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের প্রধান নদীর নাম কী?

ক) সুরমা

খ) কর্ণফুলী

গ) আত্রাই

ঘ) মাতামুহুরী

সঠিক উত্তর: (খ)

৩৩.বাংলাদেশে যেসব অঞ্চলে রাবার চাষ শুরু হয়েছে সেগুলো হলো –

  1. খাগড়াছড়ি অঞ্চলে
  2. পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে

iii. সিলেট অঞ্চলে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (খ)

৩৪.যমুনার উপনদী কোনটি?

ক) আত্রাই

খ) ধলেশ্বরী

গ) পুনর্ভবা

ঘ) শীতলক্ষ্যা

সঠিক উত্তর: (ক)

৩৫.আসামের নাগা মণিপুর অঞ্চলে কোন নদী অবস্থিত?

ক) নাফ

খ) সাঙ্গু

গ) মাতামুহুরী

ঘ) বরাক

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩৬.তিস্তা ব্যারেজটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে –

  1. পানি সংরক্ষণে
  2. পানি নিষ্কাশনে

iii. বন্যা প্রতিরোধে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩৭.কৃষি ও শিল্পের বিকাশে কোনটির ব্যবহার অপরিহার্য?

ক) গ্যাস

খ) তেল

গ) কীটনাশক

ঘ) পানি

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩৮.ব্রহ্মপুত্র নদের জন্ম কোথায়?

ক) সিলেটের লুসাই পাহাড়ে

খ) তিব্বতের মানস সরোবরে

গ) মধ্য হিমবাহের গঙ্গোত্রী হিমবাহে

ঘ) ত্রিপুরায়

সঠিক উত্তর: (খ)

৩৯.বিশ্বসভ্যতার বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো –

  1. সব সভ্যতাই নদীর তীরে বসবাস কেন্দ্রিক
  2. ঘন বনজঙ্গলের নিকট বসবাস

iii. মরুভূমি ও পাহাড়ি অঞ্চলে বসবাস

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i

খ) ii

গ) iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

৪০.মুন্সীগঞ্জের কাছে যে জলধারা মেঘনায় এসে যুক্ত হয়েছে –

  1. বুড়িগঙ্গা
  2. ধলেশ্বরী

iii. গোমতী

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

৪১.বাংলাদেশের কোন জেলা দিয়ে ব্রহ্মপুত্র নদ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?

ক) পঞ্চগড়

খ) কুড়িগ্রাম

গ) রংপুর

ঘ) লালমনিরহাট

সঠিক উত্তর: (খ)

৪২.খুলনা-বরিশাল নৌপথে কোন নদীর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ?

ক) পশুরের

খ) তিস্তার

গ) ব্রহ্মপুত্রের

ঘ) সাঙ্গুর

সঠিক উত্তর: (ক)

৪৩.ব্রহ্মপুত্রের নতুন ধারাটি দক্ষিণ গোয়ালন্দ পর্যন্ত কী নামে পরিচিত?

ক) গঙ্গা

খ) যমুনা

গ) ধলেশ্বরী

ঘ) কর্ণফুলী

সঠিক উত্তর: (খ)

৪৪.‘বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন’ কত সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়?

ক) ১৯৭২

খ) ১৯৭৩

গ) ১৯৭৪

ঘ) ১৯৮০

সঠিক উত্তর: (ক)

৪৫.মেঘনা নদীর জন্ম কোন জেলায়?

ক) সুনামগঞ্জ

খ) সিলেট

গ) ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ঘ) মৌলভীবাজার

সঠিক উত্তর: (খ)

৪৬.পশুর নদীর দৈর্ঘ্য কত কিলোমিটার?

ক) ২০৭

খ) ১৪২

গ) ২১৮

ঘ) ১৮০

সঠিক উত্তর: (খ)

৪৭.বাংলাদেশে কোন অংশে গরান বনভূমি অবস্থিত?

ক) উত্তর-পূর্বাংশে

খ) উত্তর-পশ্চিমাংশে

গ) দক্ষিণ-পূর্বাংশে

ঘ) দক্ষিণ-পশ্চিমাংশে

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৪৮.নদীর পানি কমে গেলে অস্তিত্ব বিপন্ন হতে পারে –

  1. মাছ ও পশুপাখির
  2. মানুষ ও জীবজন্তুর

iii. গাছপালা ও তরুলতার

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৪৯.কোন নদীর উৎপত্তিস্থল আসামের লুসাই পাহাড়ে?

ক) পদ্মা

খ) মেঘনা

গ) কর্ণফুলী

ঘ) যমুনা

সঠিক উত্তর: (গ)

৫০.ক্রান্তীয় পাতাঝরা বনভূমিতে বছরের কোন সময় গাছের পাতা সম্পূর্ণ ঝরে যায়?

ক) গ্রীষ্মকালে

খ) শীতকালে

গ) শরৎকালে

ঘ) বসন্তকালে

সঠিক উত্তর: (খ)

৫১.কোনটি ব্রহ্মপুত্রের উপনদী?

ক) ধলেশ্বরী

খ) ধরলা

গ) মহানন্দা

ঘ) গোমতী

সঠিক উত্তর: (খ)

৫২.মাতামুহুরী নদীর উৎপত্তিস্থল কোথায়?

ক) সিলেটের লুসাই পাহাড়ে

খ) লামার মাইভার পর্বত

গ) সিকিমের পার্বত্য অঞ্চলে

ঘ) সিলেটের জয়ন্তিয়া পাহাড়ে

সঠিক উত্তর: (খ)

৫৩.বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থায় কোন নদীর ভূমিকা সর্বাধিক?

ক) মেঘনা

খ) তিস্তা

গ) যমুনা

ঘ) মাতামুহুরী

সঠিক উত্তর: (খ)

৫৪.পশুর নদীর –

  1. উৎপত্তি সিকিমের পার্বত্য অঞ্চলে
  2. দৈর্ঘ্য ১৪২ কি.মি.

iii. প্রস্থ ৪৩ মিটার থেকে ২.৫ কি.মি.

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (খ)

৫৫.বাংলাদেশে বর্তমানে মোট আয়তনের কত ভাগ বনভূমি রয়েছে?

ক) ১১

খ) ১৩

গ) ১৪

ঘ) ১৫

সঠিক উত্তর: (খ)

৫৬.নাফ নদীর দৈর্ঘ্য কত কিলোমিটার?

ক) ৪০

খ) ৫৬

গ) ৭৫

ঘ) ৮০

সঠিক উত্তর: (খ)

৫৭.১৯৮৭ সালে প্রবল বন্যার ফলে –

  1. তিস্তার গতিপথ পরিবর্তিত হয়
  2. তিস্তা নদীর দুকুল আরো প্রশস্ত হয়

iii. ব্রহ্মপুত্রের একটি পরিত্যক্ত পথে তিস্তার প্রবাহ শুরু হয়

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (গ)

৫৮.পানির অভাবে সংকটাপন্ন হয়ে ওঠে –

  1. জীবনযাপন প্রণালি
  2. কৃষিজ উৎপাদন

iii. শিল্প উৎপাদন

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৫৯.মেঘনা নদী –

  1. ভৈরববাজার অতিক্রম করে পুরাতন ব্রহ্মপুত্রের সাথে মিল হয়েছে
  2. সিলেট জেলার সুরমা ও কুশিয়ারার মিলিতস্থলে সৃষ্টি হয়েছে

iii. তিব্বতের মানস সরোবরে উৎপত্তি হয়েছে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

৬০.কোনটি মেঘনার উপনদী?

ক) বোয়ালখালি

খ) মহানন্দা

গ) ভৈরব

ঘ) বাউলাই

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৬১.পদ্মা নদীর ভারতীয় অংশের নাম কী?

ক) ইরাবতি

খ) ঝিলাম

গ) নাফ

ঘ) গঙ্গা

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৬২.বর্তমানকালে মানুষের সঙ্গে নদীর সম্পর্ক –

  1. বহুমাত্রিক
  2. কৃত্রিম

iii. নিবিড়

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৬৩.বাংলাদেশে অনেকগুলো নদী নাব্যতা হারাচ্ছে –

  1. পানিপ্রবাহ বেড়ে যাওয়ার ফলে
  2. পানিপ্রবাহ কমে যাওয়ার কারণে

iii. নদীর গতিপথ পরিবর্তনের কারণে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i

খ) ii

গ) iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (খ)

৬৪.যমুনার শাখা নদীর নাম কী?

ক) ধলেশ্বরী

খ) আত্রাই

গ) বুড়িগঙ্গা

ঘ) মধুমতী

সঠিক উত্তর: (ক)

৬৫.কোথায় শস্য উৎপাদন সীমিত আকারে হয়?

ক) পশ্চিমবঙ্গে

খ) মিয়ানমারে

গ) হিমালয়ের পাদদেশে

ঘ) নদী বিধৌত অঞ্চলে

সঠিক উত্তর: (গ)

৬৬.অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষকে সংক্ষেপে কী বলা হতো?

ক) IWTC

খ) IWTC

গ) BIWTC

ঘ) BIWTA

সঠিক উত্তর: (ক)

৬৭.স্রোতজ বনভূমি দেখা যায় –

  1. সিলেটে
  2. নোয়াখালীতে

iii. চট্টগ্রামে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৬৮.কোন দেশটি খনিজ সম্পদে বেশ অগ্রসর অবস্থানে আছে?

ক) বাংলাদেশ

খ) নেপাল

গ) ভুটান

ঘ) মিয়ানমার

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৬৯.বাংলাদেশের বনাঞ্চলকে কত ভাগে ভাগ করা হয়েছে?

ক) ২

খ) ৩

গ) ৪

ঘ) ৫

সঠিক উত্তর: (গ)

৭০.দক্ষিণ এশিয়ার উল্লেখযোগ্য কৃষিপ্রধান দেশ হলো –

  1. বাংলাদেশ
  2. ভারত

iii. নেপাল

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

৭১.বাংলাদেশের পাতাঝরা বনভূমি অঞ্চল হলো –

  1. টাঙ্গাইল
  2. রংপুর

iii. চট্টগ্রাম

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ক)

৭২.কোনটি মহানন্দার উপনদী?

ক) তিতাস

খ) গড়াই

গ) আত্রাই

ঘ) ট্যাংগন

সঠিক উত্তর: (ঘ)

* উদ্ধৃত অংশটুকু পড় এবং নিচের ২টি প্রশ্নের উত্তর দাও:

নিরক্ষীয় অঞ্চলের লোকেরা আধুনিক যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রকৃতি থেকে এক ধরনের শক্তি পেয়ে থাকে।

৭৩.উদ্দীপকে শক্তির কোন উৎসের প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে?

ক) পানি

খ) সূর্য

গ) কয়লা

ঘ) গ্যাস

সঠিক উত্তর: (খ)

৭৪.উক্ত উৎস থেকে প্রাপ্ত শক্তি আমাদের সহায়তা করে –

  1. বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা ক্ষেত্রে
  2. আরামদায়ক বসবাসের ক্ষেত্রে

iii. ফসল উৎপাদনের ক্ষেত্রে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) i ও ii

খ) ii ও iii

গ) i ও iii

ঘ) i, ii ও iii

সঠিক উত্তর: (ঘ)

বাংলাদেশের নদ-নদী ও প্রাকৃতিক সম্পদ, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

জ্ঞান মূলক প্রশ্ন উত্তর

প্রশ্নঃ- প্রাকৃতিক সম্পদ কাকে বলে?

উত্তর : প্রকৃতিকে ব্যবহার করে মানুষ নিজেদের চাহিদা পূরণের জন্য যে সব পূণ্য-সামগ্রী উৎপাদন করে থাকে তাকেই সাধারণভাবে প্রাকৃতিক সম্পদ বলে। যেমন, মাটি, পানি, বনভূমি, সৌরতাপ, মৎস্য, খনিজ ইত্যাদি প্রাকৃতিক সম্পদ।

প্রশ্নঃ- সৌরসম্পদ কাকে বলে?

উত্তরঃ আমরা প্রকৃতি থেকে সূর্যের যে আলো অনায়াসে লাভ করি তাকে সৌরসম্পদ বলে। এটি মূল্যবান একটি প্রাকৃতিক সম্পদ।

প্রশ্নঃ- নাফ কী?

উত্তরঃ নাফ একটি নদীর নাম। বাংলাদেশ মায়ানমারের সীমান্তে নাফ নদী অবস্থিত।

প্রশ্নঃ- বঙ্গোপসাগর বাংলাদেশের কোন দিকে অবস্থিত?

উত্তরঃ বঙ্গোপসাগর বাংলাদেশের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশে কোন ধরনের জলবায়ু দেখা যায়?

উত্তরঃ বাংলাদেশে আর্দ্র ও সমভাবাপন্ন জলবায়ু দেখা যায়।

প্রশ্নঃ- আই ডব্লিউ টি এ কী?

উত্তরঃ আই ডব্লিউ টি এ হলো অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের দুইটি প্রধান নদীর নাম লেখ।

উত্তরঃ বাংলাদেশের দুইটি প্রধান নদীর নাম পদ্মা ও মেঘনা।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বন কোনটি?

উত্তরঃ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বন সুন্দরবন।

প্রশ্নঃ- ঢাকা কোন নদীর তীরে অবস্থিত?

উত্তরঃ ঢাকা বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের জলবায়ু কেমন?

উত্তরঃ বাংলাদেশের জলবায়ু নাতিশীতোষ্ণ।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের প্রধান নদীগুলোর নাম লিখ।

উত্তরঃ বাংলাদেশের প্রধান নদীগুলো হচ্ছে- পদ্মা, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, মেঘনা ও কর্ণফুলী।

প্রশ্নঃ- বঙ্গোপসাগরের তলদেশে কোন খনিজ সম্পদ আবিষ্কৃত হয়েছে?

উত্তরঃ বঙ্গোপসাগরের তলদেশে গ্যাস আবিস্কৃত হয়েছে।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের ভূ-প্রকৃতিকে কয়টি শ্রেণিতে বিভক্ত করা যায় ও কী কী?

উত্তরঃ বাংলাদেশের ভূ-প্রকৃতিকে তিনটি শ্রেণিতে বিভক্ত করা যায়। এগুলো হলো- ১. টারশিয়ারি যুগের পাহাড়সমূহ (১২%); ২.প্লাইস্টোসিন যুগের সোপান (৮%); ৩. সাম্প্রতিকালের প্লাবন সমভূমি (৮০%)।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশের দুটি প্রাকৃতিক সম্পদের নাম লিখ।

উত্তরঃ বাংলাদেশের দুটি প্রাকৃতিক সম্পদের নাম হলো– বনভূমি ও প্রাকৃতিক গ্যাস।

প্রশ্নঃ- বনজ সম্পদ কাকে বলে?

উত্তরঃ স্বাভাবিকভাবে কোনো অঞ্চলে বিভিন্ন ধরনের যে অসংখ্য বৃক্ষের সমারোহ দেখা যায় তাকে বনভূমি বলে। আর বনভূমি থেকে প্রাপ্ত সম্পদকে বনজ সম্পদ বলে।

প্রশ্নঃ- আমিষের ঘাটতি পূরণের জন্য কী প্রয়োজন?

উত্তরঃ আমাদের দেহের মোট আমিষের চাহিদা প্রায় শতকরা ৮০ ভাগ পূরণ করে মাছ।

প্রশ্নঃ- পদ্মা নদীর শাখা নদী এবং উপনদী কোনটি?

উত্তরঃ শাখা নদী : কুমার, মাথাভাঙ্গা, ভৈরব, গড়াই, মধুমতি, আড়িয়াল খাঁ প্রভৃতি পদ্মার শাখা নদী।

উপনদী : উপনদীগুলোর মধ্যে মহানন্দাই প্রধান। মহানন্দার উপনদী পুনর্ভবা, নাগরকুলিক, ট্যাংগন ইত্যাদি।

প্রশ্নঃ- দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে প্রচুর সৌরশক্তি পাওয়া যায় কেন?

উত্তরঃ নিরক্ষীয় নিম্ন অক্ষাংশ অঞ্চলে সূর্য বছরের প্রায় সব সময়ই লম্বভাবে কিরণ দেয়। ফলে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার অপরাপর দেশগুলো নিরক্ষীয় বা ক্রান্তীয় অঞ্চলে অবস্থিত হওয়ার কারণে সহজে প্রচুর সৌরশক্তি পেয়ে থাকে।

প্রশ্নঃ- ওপেন পিট মাইনিং বলতে কী বোঝায়?

উত্তর : কয়লা উত্তোলনের দুটি পদ্ধতির একটি হলো ওপেন পিট মাইনিং। কয়লার খনি থেকে মেশিনের সাহায্যে ভূগর্ভ থেকে কয়লা উত্তোলন করা হয়। সাধারণত কয়লার স্তর ভূ-পৃষ্ঠের কাছাকাছি থাকে বলে ওপেন পিট মাইনিং পদ্ধতি বেশি ব্যবহৃত হয়। মেশিন দিয়ে কয়লা ভূগর্ভ থেকে তোলার পর কনভেয়ার বেল্ট দিয়ে প্রক্রিয়াকরণ প্লান্টে নেওয়া হয়। সেখানে কয়লায় থাকা অন্যান্য পদার্থ যেমন: ময়লা, শিলা কণা, ছাই, সালফার ইত্যাদি পৃথক করে ফেলা হয়।

প্রশ্নঃ- মেঘনা নদীর সৃষ্টি সম্পর্কে বর্ণনা দাও।

উত্তরঃ মেঘনা নদী সৃষ্টি হয়েছে সিলেট জেলার সুরমা ও কুশিয়ারার মিলিত স্থলে। সুরমা ও কুশিয়ারার উৎপত্তি আসামের বরাক নদী নাগা মণিপুর অঞ্চলে। আজমিরিগঞ্জের কাছে কালনী নামে দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে মেঘনা নাম ধারণ করেছে। এটি ভৈরব বাজার অতিক্রম করে পুরোনো ব্রাহ্মপুত্রের সঙ্গে মিলিত হয়েছে। মুন্সিগঞ্জের কাছে বুড়িগঙ্গা, ধলেশ্বরী ও শীতলক্ষ্যার মিলিত জলধারাই মেঘনায় এসে যুক্ত হয়েছে। এটি পতিত হয়েছে বঙ্গোপসাগরে।

প্রশ্নঃ- বাংলাদেশকে নদীমাতৃক দেশ বলা হয় কেন?

উত্তরঃ বাংলাদেশ একটি নদীমাতৃক দেশ। নদীগুলোই বাংলাদেশের জীবনকে বাঁচিয়ে রেখেছে। বাংলাদেশের নদ-নদীর সংখ্যা ৭০০টির মতো। এ নদীগুলোর মধ্যে প্রধান প্রধান নদী হচ্ছে– পদ্মা, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, মেঘনা, কর্ণফুলী, সাঙ্গু প্রভৃতি। বাংলাদেশ ভূখণ্ডে চিরচেনা ও পরিচিত বেশির ভাগ নদীর উৎপত্তিস্থল হিমালয়, তিব্বত, আসামের বরাক ও লুসাই পাহাড়ে। এগুলো শেষ পর্যন্ত বঙ্গোপসাগরে মিলিত হয়েছে। মানুষের যাতায়াত ও পণ্য আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রে এসব নদী জীবনকে সহজ ও গতিশীল করেছে। আবহমানকাল ধরে এ নদীপথের সাহায্যেই এ দেশের মানুষ তাদের জীবন-জীবিকা গড়ে তুলেছে। কৃষিকাজে জল সেচের প্রধান উৎস এসব নদ-নদী। দেশের মাছের চাহিদার একটি বিরাট অংশ এ নদীগুলো থেকে সরবরাহ হয়। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রমের ওপর এসব নদীর প্রভাব অপরিসীম। তাই বাংলাদেশকে নদীমাতৃক দেশ বলা হয়।

প্রশ্নঃ- আমাদের নদীগুলোকে বাঁচাতে হবে কেন?

উত্তরঃ আমাদের নদীগুলো প্রবাহ হারালে দীর্ঘদিন ধরে নদীকে কেন্দ্র করে যেসব পেশার মানুষ জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে তাদের জীবনে অভাব-অনটন নতুনভাবে সৃষ্টি হতে পারে। নদীর তীরে যেসব গাছপালা, বাগান, বাড়ি, সবুজ বৃক্ষের সমারোহ গড়ে উঠেছে সেগুলো পানির অভাবে নষ্ট হয়ে যাবে। ফলে মানুষ, মাছ, পশুপাখি ও গাছ-তরুলতার অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে। এজন্য আমাদের নদীগুলোকে বাঁচাতে হবে। এর জন্য নদীতে নিয়মিত খনন করা, অপ্রয়োজনীয় বাঁধ, পুল-কালর্ভাট নির্মাণ না করা, পানির প্রবাহ ঠিক রাখার উদ্যোগ নিতে হবে।

Download From Google Drive

Download

আরো পড়ুনঃ-

Download From Yandex

Download