কীবোর্ডের কী F1 থেকে F12 পর্যন্ত সঠিক ব্যবহার পিডিএফ ডাউনলোড

0
18

কীবোর্ডের কী F1 থেকে F12 পর্যন্ত সঠিক ব্যবহার

পিডিএফ ডাউনলোড

কম্পিউটার আমাদের নৃত্যদিনের সঙ্গী । আমাদের প্রায় এখন সব কাজে কম্পিউটার ব্যবহার করা অপরিহার্য হয় উঠেছে । আর এই পরিচালনার জন্য কিবোর্ডে ও মাউসে ক্লিক করতে হয় । অনেক সময় বেশি বেশি কিবোর্ডে ক্লিক করতে হয় । তাই এই ক্লিক করাকে যদি Short করা যায় ।তাই অনেক কম্পিউটার শর্টকার্ট কি ব্যবহার করা যায় । কম্পিউটার শর্টকার্ট কি ব্যবহার এর ফলে অনেক কাজ সহজ হয়ে যায় । নিচে computer এর বিভিন্ন কম্পিউটার শর্টকার্ট কি সম্পর্কে দেওয়া হলো ।

(১) Ctrl+z=কোনো কিছুকে undo করার জন্য ব্যবহার করা হয় । (২) Ctrl+B=কোনো কিছু Bold করার জন্য ব্যবহার করা হয় । (৩) Ctrl+U=Underline দেওয়ার জন্য ব্যবহার করাহয় । (৪) Ctrl+I= কোনো কিছু italic করার জন্য ব্যবহার করা হয়। (৫) Ctrl+C= Copy করার জন্য ব্যবহার করা হয় । (৬) Ctrl+X = কিছুCut করার জন্য (৭) Ctrl+V = কোনো কিছু Paste করার জন্য ব্যবহার করা হয় । (৮) Ctrl+A=ফাইলের সব কিছু একই সাথে Select করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

আমরা জানি কম্পিউটারের কিবোর্ডে বিভিন্ন কি রয়েছে । কারণ কি দিয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করা যায় । এই কিবোর্ডে বাম থেকে F1 থেকে শুরু এবং F12 দিয়ে শেষ হয়েছে এগুলোকে বলে Function কি । Function key সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলো।

F1 থেকে F12 পর্যন্ত Function key গুলো বিস্তাতির আলোচনা

F1– উইন্ডোজে computer এর সব জায়গায় হেল্প মেনু হিসেবে কাজ করে থাকে । কোনো সফটওয়্যারের সাহায্যে প্রয়োজন হলে F1 চাপলে আপনার সাহায্যের পৃষ্ঠা খুলে যাবে ।সেখান থেকে আপনি সাহায্য নিতে পারেন ।

F2– আপনার সিলেক্ট করা যেকোনো ফাইল বা ফোল্ডার খুব সহজেই Rename করতে পারবেন ।মাইক্রোসফট ওয়ার্ড Alt+Ctrl+F2 চাপলে পুরানো ফাইল খুব সহজে খোলা যায় ।

F3– পিসিতে কোনো পেজ Browse করে সেখানে অনেক তথ্য আছে । সেখান থেকে নির্দিষ্ট তথ্য আপনার লাগবে তাই খুব সহজে তথ্য পাওয়ার জন্য F3 চপালে একটা সার্চ বক্স আসবে। ঐ সার্চ বক্স যা খুজতে চান সেই কিওয়ার্ডটি দিলে সব রেজাল্ট দেখাবে ।

F4– মাইক্রোসফটের ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার অন করে F4 চাপ দিলে Search বারে আগে যা দেখা হয়েছে সেগুলো প্রদর্শন করতে থাকবে ।আর ওয়ার্ড প্রসেসিং ই AlF+F4 চাপলে সর্বশেষ কাজটি undo করা যায় ।

F5-দ্রুত উইন্ডোজ রিফ্রেস করার জন্য F5 ব্যবহার করা হয় । F5 চেপে পাওয়ার পয়েন্টে খুব সুন্দর উপস্থাপন করা যায় । যেকোনো Browser এর বর্তমান উইন্ডোটি রিফ্রেস করার জন্য F5 ব্যবহার করা হয় ।

F6– এর একটা চমৎকার ব্যবহার রয়েছে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম । যেকোনো Browser open করার পর F6 চাপলে আপনার কারসরটি যেখানেই থাকুক না কেন অ্যাড্রেস বারের অবস্থান করবে।

F7-মাইক্রোসফট ওয়ার্ড লেখার বানান ও ব্যাকারণ ঠিক আছে কিনা তা যাচাই করার জন্য F7 ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।

F8-অপারেটিং সিস্টেম অন করার সময় এই কি টি বেশি লাগে । এছাড়া উইন্ডোজ Safemode চালাতে এটি কাজে লাগে।

F9-এটার একটা চমৎকার ব্যবহার হচ্ছে আপনি যদি উইন্ডোজ প্লেয়ারে কোনো অডিও ও ভিডিও প্লে করেন সেটা সাউন্ড বাড়ানোর জন্য কাজ করে থাকে ।যত F9 এ চাপ দিবেন তত সাউন্ড বাড়তে থাকবে ।

F10-উইন্ডোজ 7 এর ক্ষেত্রে উইন্ডোজ প্লেয়ারে কোনো কিছু প্লে থাকলে F10 চাপলে সেই ভিডিওটা অডিও আকারে চলতে থাকবে।

F11-আপনি যদি কখনও টাইপিং করে থাকেন তাহলে Backspace এ চাপ দেওয়ার সময় ভুল করে F11 তে চাপ লেগে যেতে পারে । আর F11 চাপ লাগার কারণে Browser এর ঐ পেজটা ফুল স্কিন হয়ে যায় । তবে আবার যদি F11 চাপ দেওয়া হয় তাহলে সেই পেজটি আগের অবস্থানে ফিরে আসে ।

F12-যারা আভ্র কিবোর্ড সফটওয়্যার ব্যবহার করেন তাদের কাছে F12 খুবই গুরুত্বপূর্ণ । কারণ অভ্রতে আপনি যখন ইংরেজি থেকে বাংলায় রুপান্তর করতে চান কিবোর্ডেটি তখনই F12 চাপলে বাংলায় রুপান্তর হয়ে যাবে । আবার কিবোর্ডে ইংরেজি করতে হলে F12 চাপলে কিবোর্ড ইংরেজিতে রুপান্তর হয়ে যাবে । তাই বলা যায় অভ্র সফটওয়্যার ব্যবহারকারীদের কাছে F12 খুবই কার্যকারী কি ।

আরো পড়ুনঃ-

Download From Google Drive

Download 

Download From Yandex

Download 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here